Sunday, মে ১৯, ২০২৪
শিরোনাম

নির্বাচনে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের সংঘাত না করার হুশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

পাবনা প্রতিনিধি: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকে আরও সুদৃঢ় করতে নৌকায় ভোট চাওয়ার পাশাপাশি নেতাকর্মদের সংঘাত না করার হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের কেউ সহিংসতা বা সংঘাত করলে রেহাই দেওয়া হবে না বলেও জানান।
বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) ঢাকা থেকে পাঁচ জেলায় নির্বাচনী ভার্চ্যুয়ালী জনসভায় যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন। ৫ জেলার মধ্যে ছিল, পাবনা, নাটোর, পঞ্চগড়, লালমনিরহাট ও খাগড়াছড়ি।

ভার্চ্যুয়ালী জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এবারের নির্বাচনে আপনাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে, সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ করে কেউ মানুষের ক্ষতি যেন করতে না পারে। সে জন্য সবাইকেই আমি সজাগ থাকার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।

পাশাপাশি আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণ ভোট দেবে। ভোটের মালিক জনগণ, এটা তাদের সাংবিধানিক অধিকার। আমাদের নৌকার প্রার্থীও আছে, স্বতন্ত্রও প্রার্থী এবং অন্যান্য দলও আছে। কাউকে কোন প্রকার বাধা দেওয়া যাবে না। আপনারা (প্রার্থীরা) প্রত্যেকে জনগণের কাছে যাবেন, জনগণ যাকে ভোট দেওয়ার দেবে, তিনি নির্বাচিত হবেন। কেউ কারো অধিকারে হস্তক্ষেপ করবেন না। কোন সংঘাত-মারামারি কোনো কিছু আমি দেখতে চাই না। সংঘাত হলে, সে যদি আমার দলেরও হন, তার রেহাই নেই। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেন তিনি।
পাবনা বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বকুল পৌর মুক্তমঞ্চে ভার্চ্যুয়ালী জনসভায় জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স বক্তব্য দেন। এ সময় পাবনা-১ এর প্রার্থী ডেপুটি স্পীকার এ্যাড. শামসুল হক টুকু, পাবনা-২ এর প্রার্থী আহমেদ ফিরোজ কবির, পাবনা-৩ এর প্রার্থী মকবুল হোসেন, পাবনা-৪ এর প্রার্থী গালিবুর রহমান শরিফসহ স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ের নানা উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বলেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা যদি অব্যাহত রাখতে হয়, তাহলে আওয়ামী লীগকে সরকার গঠন করতে নৌকায় ভোট প্রদানের আহবান জানান উপস্থিত জন সাধারনকে।

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

সর্বশেষ খবর