Monday, ডিসেম্বর ১১, ২০২৩
শিরোনাম
ডলি সায়ন্তনীকে নির্বাচনে চান পাবনার সংস্কৃতিকর্মীরাওনার্স পরিচয় দেন ডাক্তার, দিচ্ছেন সর্ব রোগের চিকিৎসাডলি সায়ন্তনীর প্রার্থীতা ফেরার অপেক্ষায় সুজানগর, আমিনপুরের মানুষঅবহেলা অব্যবস্থাপনায় অকার্যকর পাবনার সেচ উন্নয়ন প্রকল্প, বিপাকে কৃষকসাঁথিয়ায় ভোটার হালনাগাদকারীদের পাওনা দিতে গরিমসি করছেন নির্বাচন অফিসারআটঘরিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামী আটকসাঁথিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রবেশ পথে মন্দির নির্মাণ করার চেষ্টা ॥ জনমনে অসন্তোষসাঁথিয়ায় চলাচলের রাস্তায় বেড়া,অবরুদ্ধ ১৬ পরিবারআটঘরিয়ায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধনবেড়ায় পাট ক্ষেত থেকে ভ্যান চালকের লাশ উদ্ধার

বেড়ায় ত্রাণ বিতরণে এগিয়ে দাবী মাশুমদিয়া ইউনিয়নের

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

নিজস্ব প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এবং এর বিস্তাররোধে মাশুমদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিরোজ হোসেন ত্রাণ বিতরণে বেড়া উপজেলার মধ্যে এগিয়ে বলে ইউনিয়নবাসীর। ইতোমধ্যে সরকারিভাবে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে, দলীয়ভাবে এবং তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম শুরু করেছেন। কোন জমায়েত করে নয়, লোক দেখানোর জন্যও নয়। গত এক সপ্তাহ ধরে মানুষের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তিনি নিজ হাতে ত্রাণ দিয়ে আসছেন। পুরাণ মাশুমদিয়া, কাজিরহাট, বাধেঁরহাট, খানেবাড়ি, মাশুমদিয়া বাজার, মধ্যপাড়া, কাজীপাড়া, রুপগঞ্জ, আয়েনঢোপ, ত্রিমোহনী বাজারসহ ইউনিয়নের বিভিন্ন দূর্গম এলাকায় ইউপি সদস্যদের সাথে নিয়ে ত্রাণ বিতরণ করছেন এবং অবস্থা বুঝে আরও দেবেন বলে জানিয়েছেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মাশুন্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মিরোজ হোসেন জানান, “আমি আমার ইউনিয়নে ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রায় ১৫০০ পরিবারকে কিছু ত্রাণ (প্রত্যেক পরিবারের জন্য পাঁচ কেজি চাউল, ১ কেজি আলু, ১ কেজি ডাউল ও ১ কেজি খাবার তেল) প্রদান করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ইতোমধ্যে কিছু বিতরণ করা হয়েছে এবং বাকিগুলোও পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়াও আমার ইউনিয়নের ৩১০ পরিবারের জন্য প্রাথমিকভাবে ১০ কেজি করে চাউল সরকারি ত্রাণ তহবিল থেকে এসেছে, যা পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হচ্ছে। আরও ৩০০ পরিবারের নামের তালিকা চাওয়া হয়েছে এবং তালিকা প্রস্তুতের কাজ চলছে। যদি কোন হতদরিদ্র ব্যাক্তি আমার তালিকায় বাদ পড়ে, খোঁজ পেলে তা সংগ্রহ করে বিতরণ করা হবে।” সরকারি ত্রাণ বিতরণের স্বচ্ছতার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন “আমার শরীরে এক বিন্দু রক্ত থাকতেও আমি ত্রাণ বিতরণে কোন অনিয়ম করব না বা অনিয়ম সহ্যও করব না।”

বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ত্রাণ বিতরণ করছেন চেয়ারম্যান মিরোজ হোসেন


তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে আমি যেভাবে দ্বারে দ্বারে ভোট চেয়েছি, ঠিক সেভাবে মানুষের দ্বারে দ্বারে খাবার দিতে যাচ্ছি। আমার ইউনিয়নের একটি পরিবারও না খেয়ে থাকে, তবে সে দায় আমার। করোনা পরিস্থিতিতে দরিদ্র মানুষের জন্য আমার একার পক্ষে সব করা সম্ভব না। তিনি ইউনিয়নের ধনীব্যক্তিদের দেশের এ সংকটময় মুহূর্তে এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান যারা ইতোমধ্যে মাশুমদিয়া ইউনিয়নের দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

সর্বশেষ খবর