Tuesday, মে ২১, ২০২৪

চলে গেলেন বেড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক : বেড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্না লিল্লাহী ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাঁর ভাতিজা শফিউর রহমান শফি গণমাধ্যমকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ৩ সেপ্টেম্বর করোনার উপসর্গ নিয়ে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন বীরমুক্তযোদ্ধা আব্দুল কাদের। এক সপ্তাহ ধরে চিকিৎসার পরে আজ তাঁর মৃত্যুতে এলাকায় ও জেলার রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
উল্লেখ্য, বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের ১৯৭৪ সালে পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং ১৯৭৮ সালে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন। ১৯৬৯ সালে শহীদ বুলবুল কলেজে ছাত্র সংসদের এবং ১৯৭৪ সালে সরকারি এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। ১৯৭২ সালে নগরবাড়ি ঘাটে শ্রমিক ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা করে প্রতিষ্ঠাতা-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান নগরবাড়ি মুজিব বাঁধ উদ্বোধনকালে ঐতিহাসিক বিশাল জনসভার পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২ সালে কাশিনাথপুর শহীদ নূরুল হোসেন ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৭২ সালে জাতসাখিনী ইউনিয়নের চকভরিয়া গ্রামে তার পিতার নামে একটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন।
এছাড়া জেলা আওয়ামীলীগের প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে তিনি অগ্রভাগে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আব্দুল কাদেরের ভাতিজা শফিউর রহমান শফি জানান, অর্ধশতাধিক বছর ধরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে সক্রিয় রাজনীতি করেছেন তার চাচা। সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে যা করেছেন-সবই জনগণের জন্য, নিজের জন্য কিছুই করেননি।
মরহুম আব্দুল কাদের স্ত্রী, ২ ছেলে, ২ মেয়ে ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর বাড়ি আমিনপুর থানাধীন শিবপুর গ্রামে।

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

সর্বশেষ খবর