Tuesday, মে ২১, ২০২৪

প্রশাসনের কাছে পাষণ্ড স্বামীর নিষ্ঠুর নির্যাতনের বিরুদ্ধে ন্যায় বিচার চায় স্কুল শিক্ষিকা

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পাবনা জেলার সাঁথিয়া থানার যশমন্তদুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের সাথে এক বছর আগে বিয়ে হয় আমিনপুর থানার দুর্গাপুর গ্রামের মোছাঃ নার্গিস খাতুন (৩১) তিনি সাগরকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার পাষণ্ড স্বামী মোঃ নজরুল ইসলাম(৩৫) যৌতুকের টাকার জন্য তার স্ত্রীকে বিভিন্ন সময়ে বিনা কারণে অকারণে মারপিট’সহ শারিরিক ও মানষিক জ্বালা যন্ত্রণা করিয়া আসিতেছে।তার কারণ হিসাবে নার্গিস খাতুন এ প্রতিবেদককে বলেন,মোছাঃ শারমিন আক্তার রুপা(৩৫),স্বামী মোঃ আনিছুল হক সাং যসমন্তদুলিয়া, থানা-সাঁথিয়া জেলা-পাবনা এর সহিত তার স্বামী মোঃ নজরুল ইসলামের অবৈধ সম্পর্ক রহিয়াছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০/১০/২০২০ইং তারিখ বিকাল ৪.০০ ঘটিকার সময় তার স্বামী বিনা কারণে যৌতুকের টাকা আনার জন্য চাপ দেয়,তখন সে যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করিলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে এবং উত্তেজিত হইয়া লোহার রড দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে তাহার স্ত্রী মোছাঃ নার্গিস খাতুনের পিঠে, কোমড়ে,গুরুতর আঘাত করিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে।খবর পেয়ে নার্গিসের পরিবার চিকিৎসার জন্য সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন এবং সাঁথিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,বিবাদীরা ফোন করে নার্গিস খাতুনের বাবাকে বলে মামলা মোকদ্দমা করিলে হত্যা সহ বড় ধরনের ক্ষতি করিবে মর্মে হুমকি প্রদান করে। এব্যাপারে সাঁথিয়া থানার এস আই একরামুল আসামী নজরুল ইসলামকে এইমাত্র গ্রেফতার করেছে।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসাদুজ্জামান জানান,অপরাধী যেই হোক তাকে শাস্তি পেতেই হবে।

শেয়ার করতে এখানে চাপ দিন

সর্বশেষ খবর